Home / মিডিয়া নিউজ / বেশি সৌন্দর্যই যে নায়িকার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিলো

বেশি সৌন্দর্যই যে নায়িকার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিলো

গায়ের রঙ সে যেমনই হোক পৃথিবীজুড়ে নায়িকাদের সৌন্দর্য একটা গুরুত্বপূর্ণ যোগ্যতা। আর দশজন

নারী থেকে নায়িকা থাকবেন অনেক বেশি আলাদা। রূপে-গুণে-লাবণ্যে হবেন অনন্যা।

তিনি চুম্বকের মতো টানবেন পুরুষকে গোপন বাসনায়। এটাই স্বাভাবিক।

কিন্তু সৌন্দর্যই যদি কাল হয়ে দাঁড়ায় নায়িকার তখন সেটা বেশ অস্বাভাবিক বটে। একদম তাই ঘটেছে ভারতীয় এক নায়িকার ভাগ্যে। যার অতিরিক্ত রূপ-সৌন্দর্য তার ক্যারিয়ারের প্রতিবন্ধক হয়ে দাঁড়িয়েছিলো।

বলছি বলিউড অভিনেত্রী জেসমিনের কথা। যিনি ১৯৮৮ সালে ‘ভিরানা’ সিনেমা দিয়ে নায়িকা হিসেবে যাত্রা শুরু করেন। সেই ছবিটি ছিলো বি গ্রেড ভয়ের। একেবারে কাল্ট বলা যায়।

রামসে ব্রাদার্সের এই সিনেমা দিয়ে নায়িকা হিসেবে সবার নজর কাড়েন জেসমিন। তাকে নিয়ে সবদিকে তোলপাড় পড়ে গিয়েছিল। তাকে নিয়ে ভাবতে শুরু করেছিলো বলিউডের প্রথম সারির প্রযোজক-নির্মাতারা। অনেক সুপারস্টারদের বিপরীতেও হয়তো খুব দ্রুত দেখা মিলতো তার।

বলিউডে যোগ হতো আরও একজন ডিভার নাম। কিন্তু অতিরিক্ত সৌন্দর্যই সেই পথটা বন্ধ করে দিলো জেসমিনের।

ভিরানা ছবিটি মুক্তির পর রাতারাতি আলোচনায় চলে আসেন জেসমিন। সবখানে তাকে নিয়ে শুরু হয় হৈ চৈ। তার আকর্ষণীয় ফিগার, প্রতিমার মতো চোখ-মুখ যেন আ গু ন ধরিয়ে দিলো কোটি কোটি পুরুষের অন্তরে।

তার উপর নজর পড়ে আন্ডারওয়ার্ল্ডের ডাকসাইটে সব ডন-গডফাদারদেরও। দাউদ ইব্রাহিম থেকে শুরু করে আরও অনেক প্রভাবশালীরা জেসমিনকে কাছে পেতে মরিয়া হয়ে উঠে। তাকে বাগে আনতে না পেরে বহু টাকার প্রস্তাবও দেয়া হয়। অতিষ্ঠ হয়ে উঠে জেসমিনের জীবন।

ভুগছিলেন নিরাপত্তা হীন তাতেও। বাধ্য হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন নায়িকা। কিন্তু উপমহাদেশে তখন ডন আর গডফাদারদের স্বর্ণযুগ। ভারতের মহারাষ্ট্র পুলিশের একটা বড় অংশ আন্ডারওয়ার্ল্ডের কাছে কার্যত বিক্রি হয়ে আছে। তাই অভিযোগ জানিয়েও কোনো কাজ হয় না।

উপায় না দেখে নিজেকে বাঁচাতে স্বপ্নের ক্যারিয়ার ফেলে জেসমিন দেশ ছাড়লেন। পাড়ি জমান আমেরিকায়। সেখানেই এক ব্যবসায়ীকে বিয়ে করে সংসার পেতেছেন। আর কোনো দিন ফেরেননি ভারতে।

শোনা যায়, তিনি নাকি নিজেকে ভারতীয় হিসেবে পরিচয়ও দেন না কোথাও। যে দেশ তাকে নিরাপত্তা দিতে পারেনি, যে দেশ তাকে জন্ম দিয়েও তার স্বাভাবিক জীবনের ব্যবস্থা করতে পারেনি সেই দেশকে তিনি আর কোথাও ধারণ করেন না।

বিয়ে করছেন বরুণ….

বলিউডে তারকাদের মধ্যেও বেশ প্রিয় জুটি বরুণ ধাওয়ান ও তার প্রেমিকা নাতাশা দালাল। সেই ছোটবেলা থেকে তাদের বন্ধুত্ব। কলেজ জীবনে এসে সম্পর্কটি রুপ নেয় ভালোবাসায়। সেই সম্পর্ক নিযে বেশ ভালোই আছেন তারা। এবার বিয়েতে গড়াচ্ছে প্রেম।

প্রায় দুই বছর ধরে বলিপাড়ায় বরুণ ধাওয়ান ও তার ছোটবেলার বন্ধু-প্রেমিকা নাতাশা দালালের বিয়ের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। করণ জোহারের ‘কফি উইথ করণ’ অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে পেশায় পোশাক ডিজাইনার নাতাশার সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন বরুণ।

কবে বিয়ে করবেন এবার সেই আভাস দিলেন বরুণ। জানা গেলো, এই বছরের শেষে কিংবা আগামী বছরের শুরুর নাতাশা দালালের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন বরুণ ধাওয়ান। প্রথমে গোয়ায় বিচ ওয়েডিং শোনা গেলেও, এখন শোনা যাচ্ছে জোধপুরে ডেস্টিনেশন বিয়ের অনুষ্ঠান করবেন তিনি।

হিন্দু রীতি মেনেই বিয়ের সব অনুষ্ঠান পালন করা হবে। তার জন্য মেহেরানগড় দুর্গেও বুকিং করা হয়েছে। বিয়ের অনুষ্ঠানে পাপারাৎজ়ির প্রবেশাধিকার থাকবে না। পরিজন ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবই শুধু উপস্থিত থাকবেন।

বিয়ের অনুষ্ঠানে থাকবেন আলিয়া ভাট, অর্জুন কাপূর, করণ জোহর ও ডিজ়াইনার কুণাল রাওয়াল। আর বিয়ের এক সপ্তাহ পরে বরুণ মুম্বাইয়ে ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুদের নিয়ে পার্টি দিবেন। বর্তমানে বাবা ডেভিড ধওয়নের পরিচালনায় ‘কুলি নাম্বার ওয়ান’ ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত বরুণ।

Check Also

নতুন পরিচয়ে আসছেন দীঘি, দেখা যাবে ঢাকার বিলবোর্ডে

শিশুশিল্পীর পাট চুকিয়ে নায়িকা হয়ে বড় পর্দায় অভিষিক্ত হয়েছেন অনেক আগেই। আলোচনা থেকে সমালোচনা সব …

Leave a Reply

Your email address will not be published.