Home / মিডিয়া নিউজ / সোনার সুতো দিয়ে বোনা, হিরে ভর্তি নীতা আম্বানির শাড়ি

সোনার সুতো দিয়ে বোনা, হিরে ভর্তি নীতা আম্বানির শাড়ি

যদি দামি পোশাক পড়া নিয়ে আপনার মনে বিন্দুমাত্রও গর্ব থাকে তবে সাবধান! আপনার গর্ব অচিরেই

ধুলিস্যাত হবে! কত দামের পোশাক পড়েন? এক লাখ? দুই-তিন-পাচ-দশ লাখ? ধূর!

নীতা আম্বানী যে শাড়িটা পরেছেন তার দামে আস্ত বাড়ি কিনে ফেলা যায়! চলতি বছরের শুরু থেকেই

খবরের শিরোনামে রয়েছেন আম্বানি পরিবার। এই বছর দেশের সবচেয়ে ধনী ব্যবসায়ী মুকেশ আম্বানির বড় ছেলে আকাশ আম্বানির বিয়ে হবে শ্লোকা মেহতার সঙ্গে।

শ্লোকা বিখ্যাত হীরে ব্যবসায়ী রাসেল মেহতার ছোট মেয়ে। সম্প্রতি, দুজনের এনগেজমেন্ট হয়েছে গোয়াতে। যেখানে পরিবারের ঘনিষ্ঠজন এবং বন্ধুরা উপস্হিত ছিলেন। দুজনে গোয়াতে প্রি-ওয়েডিং ফটোশুটও করিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবি ভাইরাল হয়েছে। মুকেশ আম্বানি হবু বউমাকে কেক খাওয়ান। এনগেজমেন্টে নিতা আম্বানি অফ্ হোয়াইট এথনিক পোষাক পড়েছিলেন। মুকেশ আম্বানি পড়েছিলেন লাল ও সাদা চেক শার্ট।

দেশের অন্যতম ধনকুবের অনিল আম্বানীর স্ত্রী নীতা আম্বানী নিজেও ধনী শিল্পপতি। রিলায়েন্স ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন এবং মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের মালকিন

সামাজিক কাজকর্মের সাথে যুক্ত এবং গ্ল্যামারেস লাইফের কারণেও বিখ্যাত। বোঝাই যাচ্ছে নীতা আম্বানীর ঠাট-বাহার। আর সেটা দেখাতে তিনি ভালোইবাসেন। নিত্য নতুন কেনেন দামি পার্স, ঘড়ি, গয়না, জুতো। ঘুরিয়ে ফিরিয়ে পড়েন না। দেখিয়ে পড়েন। মোটামুটি আয়েসি এবং বিলাসী জীবন নীতা আম্বানীর।

আসলে কোটি কোটি টাকার মালিক হলে যা হয়! ভারতের মতো গরিব দেশে এত এত টাকার সম্পত্তি শুনলে কেমন গা ছমছম করে! যাইহোক, নীতা আম্বানীর মতো বড়লোকেরা মাঝে মধ্যে এমন কাণ্ড ঘটিয়ে ফেলেন। নিজে কতটা বড়লোক সে বিষয়ে সন্দিহান হয়ে পড়লে নিজেকে একটা ঝাঁকুনি দিতে হয়। নীতা আম্বানীও তাই করেছেন। ৪০ লক্ষ টাকা দাম দিয়ে একটা সিল্ক কাঞ্জিভরম শাড়ি কিনে ফেলেছেন তিনি। ফ্যাশন লেডি ওয়েবসাইটের একটি প্রতিবেদনে প্রকাশ পেয়েছে এই তথ্য। শাড়িটি ডিজাইন করেছেনচেন্নাইয়ের সিল্কের পরিচালক শিবালিঙ্গম।

শাড়ি জুড়ে সোনার কাজ। বিখ্যাত চিত্রশিল্পী রাজা রবি বর্মার এগারোটি ছবি এই শাড়িতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। ছবি ঘিরে সাজানো মুক্তো, প্রবাল, রুবি, নীলকান্ত মণি, পোখরাজ, হীরে আর পান্নার মতো দামী রত্ন। কাঞ্চিপুরমের চেন্নাই সিল্ক মিলের কর্মশালায় ৩৬ জন কারিগরের পরিশ্রমে তৈরি হয়েছে এই শাড়ি।

হাতে বোনা এই শাড়ি শেষ করতে সময় লেগেছে এক বছর। ওজন কম নয়, ৮ কেজি! শাড়ির নামটিও খাসা- \’বিবাহ পাতু\’। শাড়ির ব্লাউজে রয়েছে নাথদ্বারার ছবি। \’বলিউড প্রেসেন্টস-এর রিপোর্ট অনুযায়ী ৪০ লাখ টাকা দামের এই শাড়ি নাম তুলেছে গিনেসে।

রিলায়েন্স গ্রুপের সিইও পরিমল নথবীরের ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে এই শাড়িটি পরেছিলেন নীতা। ও হ্যাঁ, তারপর আর কোনওদিন পড়েননি।

Check Also

বেশি সৌন্দর্যই যে নায়িকার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিলো

গায়ের রঙ সে যেমনই হোক পৃথিবীজুড়ে নায়িকাদের সৌন্দর্য একটা গুরুত্বপূর্ণ যোগ্যতা। আর দশজন নারী থেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.