Home / মিডিয়া নিউজ / ‘একজন ডিরেক্টর খুব গায়ে হাত দিতেন’

‘একজন ডিরেক্টর খুব গায়ে হাত দিতেন’

তিনি নিজেকে অভিনেত্রী হিসেবে পরিচয় দেন। নায়ক-নায়িকার কনসেপ্টে একেবারেই বিশ্বাসী নন।

কাজ করেন নিজের শর্তে। আগামীকাল কলকাতায় মুক্তি পাচ্ছে তার অভিনীত ‘বিবাহ ডায়েরিজ’।

তার আগে প্রেম ও কাস্টিং কাউচ নিয়ে একটি সাক্ষাৎকারে খোলামেলা বললেন সোহিনী সরকার।

প্রেম নিয়ে এই নায়িকা জানালেন, ‘একটা প্রেম আছে আমার। কিন্তু সেটাতে এখন খুব বেশি কনসেনট্রেট করছি না। এখন একটা অদ্ভুত ফেজ চলছে। পুরুষদের ঠিক সহ্য করতে পারছি না।’

এদিকে প্রায় সকল মিডিয়াতেই নায়িকাদের কাজ করতে গিয়ে কাস্টিং কাউচের পাল্লায় পড়েতে হয়েছে। এই পরিস্থিতি থেকে বাদ যায়নি হলিউড, বলিউডের তাবড় তাবড় অভিনেত্রীরাও।

নিজের ক্যারিয়ারের সেই বিভীষিকার অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে সোহিনী সরকার জানালেন, ‘টেলিভিশনের একজন ডিরেক্টর খুব গায়ে হাত দিতেন। আমি তখন খড়দহ থেকে ট্যাক্সি করে যাতায়াত করতাম। আরও ছোট ছিলাম। শটে উনি অদ্ভুত খারাপ ব্যবহার করতেন। পরে আমি রিয়্যালাইজ করি আমি তার ব্যবহারে সাড়া দিচ্ছিলাম না বলে উনি অমন করছিলেন।

আমি প্রোডিউসারকে ফোন করে বলেছিলাম আমি কাজ করতে পারব না। পরে আর একটা ভাল অফার পেয়ে ওই কাজটা ছেড়েও দিয়েছিলাম। তবে এটা ঠিক কাস্টিং কাউচ নয়। খুব বাজে একটা সিচুয়েশন হ্যান্ডেল করতে হয়েছিল। কিন্তু আমি সব সময়ই খুব ভাল লোকেদের সঙ্গে কাজ করেছি।

Check Also

বেশি সৌন্দর্যই যে নায়িকার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিলো

গায়ের রঙ সে যেমনই হোক পৃথিবীজুড়ে নায়িকাদের সৌন্দর্য একটা গুরুত্বপূর্ণ যোগ্যতা। আর দশজন নারী থেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.